বিশ্বের সবচেয়ে কালো শিশু?

29 November, 2018 05:11 AM আন্তর্জাতিক

ফ্যাক্টচেক ডেস্ক।

২০১৫ সালের জুনে একটি শিশুর ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই দাবি করেন, এটি ‘পৃথিবীর সবচেয়ে কালো শিশু’। ছবিটি সম্পর্কে অন্য কোনো তথ্য না থাকলেও এটি দক্ষিণ আফ্রিকায় তোলা বলে দাবি করা হয়। সোশ্যাল ট্রেন্ডস পিএইচ নামক ওয়েবসাইটে এই ছবিটি প্রথম প্রকাশ করা হয়।

ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দ্রুতই বহু মানুষের নজর কাড়ে। ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের অনেকেই ছবিটির সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে থাকে। পরে ফ্যাক্টচেকিং সাইট স্নোপস অনুসন্ধান চালায়। প্রাথমিকভাবে দেখা যায়, কেউ ছবিটির স্বত্ব দাবি করছে না বা কোনো উৎসও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। মূলধারার গণমাধ্যমগুলোতেও এ নিয়ে কিছু নেই। বিশ্ব রেকর্ড সংস্থা গিনেসও এ ব্যাপারে কিছু জানে না এবং তাদের অনলাইন ডাটাবেজেও এই ছবি নিয়ে কোনো তথ্য নেই।

অবশেষে স্নোপসের ফ্যাক্ট চেকাররা উদ্ধার করতে পারে ছবিটি প্রথম @NaimHumphrey নামের একটি টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে অনলাইনে পোস্ট করা হয়, সেথানেও ছবিটি দক্ষিণ আফ্রিকায় তোলা হয় ছাড়া আর কোনো তথ্য নেই।

তাহলে ছবিটি আসলো কোথা থেকে? আসলেই কি ‘পৃথিবীর সবচেয়ে কালো চেহারার শিশুটি’র জন্ম দক্ষিণ আফ্রিকায়?

অনেক খোঁজাখুঁজির পর স্নোপস জানতে পারে, ছবিটিতে থাকা শিশুটি আসলে কোনো শিশু নয়, সেটি আসলে একটি পুতুল। ‘ব্রেথ অব হেভেন’ এর শিল্পী লায়লা পিয়ারসন্স পুতুলটি তৈরি করেন।

লায়লা স্নোপসকে বলেন, আমি আসলে প্রাণীর প্রতি ভালবাসা থেকে ২০০৫ সালে আঁকাআঁকি শুরু করি। ইবে স্টোর-এ লায়লার এমন কিছু কাজ রয়েছে, যেখানে তিনি তাঁর শিল্পকর্ম বিক্রি করেন এবং তিনি দীর্ঘ দিন যাবৎ পুতুল বানিয়ে তা বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করছেন।

মজার ব্যাপার হচ্ছে, মূলত তিনি এঁটেল মাটি দিয়ে পুতুল তৈরি করেন। ইন্টারনেটে পৃথিবীর সবচাইতে কালো চেহারার শিশু বলে প্রচারিত ছবিটি লায়লার নির্মিত একটি পুতুলের।

উৎস: স্নোপস।

Related Post