আ.লীগ সুইটিকে বহিষ্কারের পরও ‘বিএনপি নেত্রী’ বলে প্রচারণা

12 December, 2018 21:12 PM সামাজিক মাধ্যম

ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদক:

গত মঙ্গলবার রাজধানীতে এক রিকশা চালককে মারধরের ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর অভিযুক্ত সুইটি আক্তার শিনুকে নিয়ে ভিন্নরকম এক যুদ্ধ শুরু হয় অনলাইন জগতে। তার রাজনৈতিক পরিচয় কী- এটাই এই যুদ্ধের মূল ইস্যু।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রোজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের নামে চালানো একটি পেইজ সহ অনেকে শিনুকে 'বিএনপি নেত্রী' বলে ফেসবুকে প্রচারণা চালান। অন্যদিকে বিএনপিপন্থী অনলাইন এক্টিভিস্টরা তাকে 'আওয়ামী লীগ নেত্রী' বলে প্রচার শুরু করেন।

এরই মধ্যে দেশের মূলধারার সংবাদমাধ্যমে বুধবার সকাল থেকে খবর প্রকাশিত হয়ে যে, সুইটি আক্তার শিনুকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

দৈনিক সমকাল তাদের "রিকশাচালককে পিটিয়ে আ'লীগ থেকে বহিষ্কার হলেন সেই নারী" শিরোনামের খবরে জানায়, "রিকশাচালককে মারধরের ঘটনায় ঢাকা মহানগর উত্তরের ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকার পদ থেকে সুইটি আক্তার শিনুকে বহিষ্কার করা হয়েছে।"

একই খবর জানিয়েছে বাংলাদেশ প্রতিদিন, কালের কণ্ঠ, বিবিসি বাংলা ইত্যাদি সংবাদমাধ্যমও জানিয়েছে।

শিনুর বহিষ্কারাদেশের একটি কপি এসব সংবাদমাধ্যমের বরাতে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়েছে। উপরে নাম উল্লেখ করা সব ক'টি সংবাদমাধ্যম বহিষ্কারাদেশে স্বাক্ষর ৭ নং ওয়ার্ড আওয়াম লীগের নেতাদের সাথে কথা বলে তাদে উদ্ধৃতি প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে। ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল হাই হারুন ও মকবুল হোসেন গণমাধ্যমের কাছে বহিষ্কারাদেশের কথা স্বীকার করেছেন।

বিবিসি বাংলা শিনুর সাথেও কথা বলেছে। ব্রিটিশ এই সংবাদমাধ্যমটি এ বিষয়ে তাদের রিপোর্টে যা লিখেছে তা তুলে ধরা হলো--

"যে ভাইরাল ভিডিওটি নিয়ে নানারকম আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়েছে, সেটির বিষয়ে সুইটি আক্তার বিবিসি বাংলার সাথে কথা বলেছেন।

তিনি বলেছেন, মিরপুরের রূপনগর আবাসিক এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।

ওই ঘটনা নিয়ে তিনি এখন "লজ্জিত" বলেও জানান, "আমি একদম স্যরি, যেহেতু আমার ভুল হয়ে গেছে। আমার এটা করা উচিত হয়নি। আমি স্যরি বলতেছি।"

এ ঘটনার পর তাকে দল থেকে বহিষ্কারের বিষয়ে তিনি বলেন, "আমার ভুল হইছে। আমার দল ঠিক করেছে।"

তাঁর দাবি, "দলের বাইরের কিছু লোক ভিডিও করে তাকে অপব্যবহার করছে।"

এই ভিডিও ভাইরাল হওয়া সম্পর্কে সুইটি আক্তার বলেন, "এই ইলেকশনকে কেন্দ্র করে এইগুলা করতেছে। বেশি আমাদের বিপক্ষের লোকগুলা লেখালেখি করতেছে।"

এসব সংবাদমাধ্যমে শিনুকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কারের খবর প্রকাশিত হয়েছে বুধবার সকাল থেকে দুপুরের বিভিন্ন সময়ে।

(bdfactcheck.com এর পক্ষ থেকেও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই হারুনের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, শিনু ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা ছিলেন। রিকশা চালকের সাথে সেদিনকার আচরণ এবং দীর্ঘদিন ধরে আরও অন্যান্য বিষয়ে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।)

তবে এতগুলো সংবাদমাধ্যমে খবরটি প্রকাশিত ও প্রচারিত হওয়ার পরও ছাত্রলীগ সভাপতি রেজোয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের নামে চালানো দুই লক্ষাধিক ফলোয়ার ওয়ালা একটি পেইজে (তার নামে এটিই সর্বোচ্চ ফলোয়ারের পেইজ) একের পর এক পোস্ট দিয়ে সুইটি আক্তার শিনুকে 'বিএনপি নেত্রী' বলে দাবি করা হচ্ছে। এসব পোস্টের কোনোটি কয়েক হাজার বার পর্যন্ত শেয়ার হয়েছে।

তবে ৯২ হাজার ফলোয়ার ওয়ালা একটি পেইজ (Md Rezwanul Haque Chowdhury) থেকে শোভনের পরিচয়ে গত অক্টোবর মাসে ২ লক্ষাধিক ফলোয়ার ওয়ালা পেইজটিকে 'ভুয়া পেইজ' বলে অভিহিত করে একটি পোস্ট দেয়া হয়েছিল। তাতে শোভনের নামে পরিচালিত আরও কয়েকটি পেইজের লিংক দিয়ে সেগুলোর ব্যাপারে সতর্ক থাকতে অনুসারীদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। একই সাথে তিনি এসব পেইজ বন্ধে ফেসবুকে 'রিপোর্ট' করারও অনুরোধ করেন। দেখুন স্ক্রিনশটে--

২ লক্ষাধিক ফলোয়ার ওয়ালা 'ভুয়া পেইজ'টিতে বুধবার রাত ৯টা ১৮ মিনিটেও এ সংক্রান্ত একটি পোস্ট দেয়া হয়েছে।

এই পোস্টে "বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুব মহিলা দল" এর নামে একটি প্যাডে ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে 'তসলিমা জেরিন সুইটি' নামে একজনের বহিষ্কারের আদেশ দেখা যাচ্ছে। কথিত প্যাডটি পোস্ট করে 'ভুয়া' পেইজে লেখা হয়েছে, "রিকশাচালককে পেটানোর অভিযোগে বিএনপি নেত্রী সুইটিকে বিএনপি থেকে বহিষ্কারাদেশ।"

তবে এরকম নামের কাউকে 'বিএনপি থেকে বহিষ্কারের' কোনো খবর কোনো সংবাদমাধ্যমে পাওয়া যায়নি।

সুইটিকে বিএনপি নেত্রী হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিয়ে মঙ্গলবার বিকাল থেকে শোভনের নামে পরিচালিত ভুয়া পেইজটিতে আরও কয়েকটি পোস্ট --

 

এর বাইরেও গত কয়েকদিনে আরও কয়েকটি ভুয়া খবর ও ছবি একই পেইজ থেকে পোস্ট করা হয়--

তারেক রহমানের অস্ত্র ব্যবসায় জড়িত থাকার bdfactcheck এই খবরটি ভুয়া বলে প্রমাণ করে। পড়ুন এই লিংকে

মির্জা ফখরুলের এই ছবিটি ব্যবহার করে যে দাবি করা হয়েছে তা ভুয়া। বিস্তারিত দেখুন এখানে

Related Post