ভুয়া সংবাদ: দলীয় শঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে মওদুদকে বহিষ্কার করলেন মির্জা ফখরুল

29 December, 2018 01:12 AM ইলেকশন চেক ২০১৮

জাহেদ আরমান ও মিনহাজ আমান:

দলীয় শঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ব্যারিস্টার মওদুদকে বহিষ্কার করলেন মির্জা ফখরুল মর্মে একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এর সাথে দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকার একটি ভুয়া স্ক্রিনশটও ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রেস বিজ্ঞপ্তিটিতে দাবি করা হচ্ছে, বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নামে কুৎসা রটানোর অভিযোগ ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। কিন্তু বিডি ফ্যাক্টচেকের অনুসন্ধানে দেখা যাচ্ছে, মওদুদ আহমেদকে বহিষ্কারের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

ইতোমধ্যে ভুয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তি ও প্রথম আলোর নামে ভুয়া পোস্ট ব্যবহারের স্ক্রিনশট থেকে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের বহিষ্কার নিয়ে সংবাদ প্রচার করা শুরু করে দিয়েছে। বিডি পলিটিক্স শিরোনাম করেছে, “দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ব্যারিস্টার মওদুদকে বহিষ্কার করলেন মির্জা ফখরুল।” এছাড়া এটি বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ ও সংবাদ মাধ্যমের পেইজেও শেয়ার হচ্ছে। বাংলা নিউজ পোস্ট একই শিরোনাম করেছে, “দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ব্যারিস্টার মওদুদকে বহিষ্কার করলেন মির্জা ফখরুল।”

বাংলা নিউজ পোস্টের শিরোনাম।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে প্রেস বিজ্ঞপ্তিটি দেখা যাচ্ছে তা ২৮ ডিসেম্বর ইস্যু করা হয়। এতে বলা হয়, “বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির এক জরুরী সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত মোতাবেক সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে নিয়ে নির্লজ্জ মিথ্যাচারে লিপ্ত হওয়ার অভিযোগের পর তা সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে যা দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও দলের স্বার্থবিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকার সুস্পষ্ট প্রমাণ হিসেবে প্রতীয়মান হয়। এমতাবস্থায় দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সকল পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করা হল।”

ভুয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তি। 

ওই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, “দলীয় নেতাকর্মীদেরকে এই মুহূর্ত থেকে তার সঙ্গে কোনো প্রকার যেগাযোগ থেকে বিরত থাকার অনুরোধ করা হল।”

এই বিজ্ঞপ্তিটির বিষয়ে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেন, “বিএনপি এই ধরণের কোনো প্রেস বিজ্ঞপ্তি ইস্যু করেনি।”

বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খানের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বিডি ফ্যাক্টচেককে বলেন, এগুলো মিথ্যা। দলের মহাসচিবের পক্ষ থেকে এমন কোনো চিঠি দেওয়া হয়নি। বরখাস্তের চিঠিই নয় শুধু, বিএনপি সম্পর্কে অনেক ভুয়া খবর ও গুজব ছড়িয়ে অনলাইনে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে।

এদিকে দৈনিক প্রথম আলোর ফেসবুক পেজের পোস্টের ন্যায় একটি ভুয়া পোস্টের স্ক্রিনশট ব্যবহার করা হচ্ছে। এর শিরোনাম হচ্ছে, “দলীয় শঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ব্যারিস্টার মওদুদকে বহিষ্কার করলেন মির্জা ফখরুল।”

দৈনিক প্রথম আলোর ফেসবুক পেজের পোস্টের ন্যায় একটি ভুয়া পোস্ট।

ওই স্ক্রিনশটে দেখা যাচ্ছে,  সংবাদটি তিন ঘন্টা আগে পোস্ট করা হয়েছে। এতে এক হাজার সাতশ মানুষ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে, ৩১ জন মন্তব্য করেছে এবং ৩০ জন সংবাদটি শেয়ার করেছে। সংবাদটির শিরোনাম লিখে গুগল ও প্রথম আলোর নিজস্ব ওয়েবসাইটে খোঁজা হলে সংবাদটির কোনো অস্তিত্ত্ব পাওয়া যায়নি। প্রথম আলোর ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজেও সংবাদটি পাওয়া যায়নি। সংবাদ পোস্টটিতে যে ছবি ব্যবহার করা হয়েছে প্রিয়.কম এই বছরের ১৭ সেপ্টেম্বর একই ছবি ব্যবহার করেছিল। 

"দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ব্যারিস্টার মওদুদকে বহিষ্কার করলেন মির্জা ফখরুল" শিরোনামের সংবাদটি প্রথম আলের নিজস্ব সার্চ অপশনে খুঁজে পাওয়া যায়নি। এছাড়া পত্রিকাটির ফেসবুক পেইজেও এই সংবাদটির কোনো অস্তিত্ত্ব খুঁজে পাওয়া যায়নি।

প্রথম আলোর নিজস্ব ওয়েবসাইটে নেই সংবাদটি।

এর আগে বিডিনিউজের আদলে তৈরি করা ওয়বসাইট বিডিএস নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম থেকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে বহিষ্কার করা হয়েছে মর্মে ভুয়া সংবাদ প্রচার করা হয়েছিল।

Related Post