পাকিস্তান থেকে ভারত হয়ে যেভাবে সময়টিভিতে একটি ভুয়া সংবাদ

18:04 PM গণমাধ্যম

রবি হোসাইন:

সময় টিভির ওয়েবসাইটে গত ৩০ মার্চ “একই সঙ্গে চাচী ও চাচাতো বোনকে বিয়ে!” শিরোনামের একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার (৫ এপ্রিল) সেটি নতুন করে সময়টিভির ফেসবুকে পেইজে শেয়ার হয় করা হয়।

স্ক্রিনশটে প্রতিবেদনটি দেখুন-

 

খবরটি ভুয়া।

প্রথমত, এখানে যে ছবি ব্যবহার করা হয়েছে তাতে যে তিন নারী পুরুষকে দেখা যাচ্ছে তারা বিয়ে করেছেন ২০১০ সালে। এটি সাম্প্রতিক ঘটনা নয়।

দ্বিতীয়ত, ব্রিটেনের এবং পাকিস্তানের মূলধারার একাধিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ছবি ও তথ্য বলছে, ছবির পুরুষটির নাম আজহার হায়দ্রি (সময়ের রিপোর্টে বলা হয়েছে ইউসুফ খান)। আর তার দুই পাশে থাকা দুই নারীকে তিনি একই দিনে বিয়ে করেছেন। দুই নারীর মধ্যে পারস্পরিক কোনো রক্ত-সম্পর্ক নেই। সময়টিভি বর্ণিত চাচী ও তার মেয়ে তো নয়ই। বিষয়টি দুই নারীর চেহারা দেখেই স্পষ্ট ধারণা করা যায়। দুইজনই প্রায় সমবয়সী। ফলে তারা মা-মেয়ে হওয়ার সুযোগ নেই।

দুই বধুর একজনকে ছোটকাল থেকে পছন্দ করতেন আজহার। কিন্তু তার পরিবার চাচ্ছিল অন্যজনের সাথে তাকে বিয়ে দিতে। ছেলে তার ছোটকালের প্রেমিকাকে ছাড়তে রাজি নয়। আবার পরিবারের কথাও ফেলতে পারছেন না। এই উভয় সংকট থেকে আহজারকে রক্ষা করেন দুই নারী। তারা উভয়ে মিলে তাকে বিয়ে করতে রাজি হয়ে যান।

এমনটাই বলছে ব্রিটেনের দ্যা টেলিগ্রাফমেট্রো এর দুটি রিপোর্ট। লিংক: দ্যা টেলিগ্রাফমেট্রো । কানাডা ভিত্তিক সিবিসির রিপোর্ট

সময়টিভির রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে পুরুষটির নাম ইউসুফ খান। কিন্তু সময়টিভির প্রতিবেদনে খবরের উৎস হিসেবে কোনো নির্দিষ্ট পত্রিকার সূত্র দেয়া হয়নি। বলা হয়েছে, ‍‍“পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়”। হতে পারে সময়টিভি ভিন্ন কোনো ঘটনার সাথে ভুল ছবি জুড়ে দিয়েছে। ‘ইউসুফ খান’ এর নাম ব্যবহার করে চাচী ও চাচাতো বোনকে বিয়ে সংবাদ খুঁজে (ইংরেজিতে) ইন্টারনেটে কিছু পাওয়া যায়নি। তবে বাংলায় একটি পাওয়া গেছে। তা হলো কলকাতা ভিত্তিক ‘এবেলা’ পত্রিকাটির একটি সংবাদ

মজার ব্যাপার হচ্ছে, সময়টিভির দেয়া ছবিটি ব্যবহার করেই ছবির যুবককে ‘ইউসুফ খান’ পরিচয় দিয়েছে ‘এবেলা’। মাত্র ৬ দিন আগে প্রকাশিত (এবং আজকে নতুন করে শেয়ার করা) সময়টিভি রিপোর্ট এবং ২০১৬ সালের ৩ ডিসেম্বর প্রকাশিত এবেলা’র রিপোর্টের কোনো কোনো প্যারাও হুবহু মিলে যায়!

সময় ও এবেলার রিপোর্ট দুটির স্ক্রিনশট মিলিয়ে দেখুন--

সময়টিভির রিপোর্ট--

 

এবেলা’র রিপোর্ট--


এবেলা’র রিপোর্টটি কিছুদিন পরপরই অনলাইনে নানা পোর্টালে প্রকাশিত হয়েছে (স্ক্রিনশট নিচে)। সর্বশেষ সময়টিভি প্রকাশের এক সপ্তাহ আগে (২৪ মার্চ) বিডিমর্নিং নামে একটি অনলাইন পোর্টালও একই শিরোনামে এটি প্রকাশ করে (উপর থেকে প্রথম স্ক্রিনশট)।

 

Related Post