অর্থমন্ত্রীর বক্তব্য ভুলভাবে উদ্ধৃতি, অতঃপর নীরবে বদলে ফেলা!

11:06 AM গণমাধ্যম

ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদক:

সোমবার (৪ জুন) অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের একটি বক্তব্য সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী মন্ত্রী সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‌‘গত ১০ বছরে দেশে কোনো ধরনের জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি।’

বাংলাট্রিবিউন, যুগান্তর, এটিভি অনলাইন, আমাদের সময়, পরিবর্তন ডটকম, প্রিয় ডটকম ইত্যাদি নানা সংবাদমাধ্যমে এরকম বক্তব্যনির্ভর প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

বাংলাট্রিবিউনের শিরোনাম: ১০ বছরে জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি, এবারও বাড়েনি না

যুগান্তরের শিরোনাম: ১০ বছরে কোনো জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি: অর্থমন্ত্রী

আমাদের সময়ের শিরোনাম: ১০ বছরে জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি : অর্থমন্ত্রী

এনটিভি অনলাইনের শিরোনাম: গত ১০ বছরে জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি!

প্রিয় ডটকম: গত ১০ বছরে দেশে কোনো জিনিসের দাম বাড়েনি: অর্থমন্ত্রী

পরিবর্তন ডটকম: গত ১০ বছরে জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি: অর্থমন্ত্রী

নিচে গুগল সার্চে পাওয়া কয়েকটি পত্রিকার আগের শিরোনামগুলো দেখুন--



এছাড়াও অনেকে এ ধরনের শিরোনামে সংবাদ পরিবেশন করেছে। তবে আজ মঙ্গলবার উপরিউক্ত সংবাদমাধ্যমগুলোসহ বাকিরা তাদের শিরোনামসহ ভেতরের বক্তব্য বদলে দিয়েছে (কোনো ধরনের ঘোষণা ছাড়াই)।



বাংলাট্রিবিউনের বদলে দেয়া শিরোনাম, ‌‘১০ বছরে বাজেটের পর জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি, এবারও বাড়বে না: অর্থমন্ত্রী’

যুগান্তরের বদলে দেয়া শিরোনাম, ‘আগামী বাজেটে নতুন করারোপ হচ্ছে না: অর্থমন্ত্রী’

এনটিভি অনলাইনের বদলে দেয়া শিরোনাম, ‘১০ বছরে বাজেটের পর জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি!’

পরিবর্তন ডটকম এর পরিবর্তন করা শিরোনাম, ‘বাজেটে নতুন করে করারোপ হচ্ছে না: অর্থমন্ত্রী’

আমাদের সময়, প্রিয় ডটকম ইত্যাদি পোর্টাল আগের মঙ্গলবার ‍দুপুর পর্যন্ত আগের শিরোনামই রেখেছে। আমাদের সময়-এর রিপোর্টের ইন্ট্রোতে বলা হয়েছে--

“দেশবাসীকে ‘সুসংবাদ’ দিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, গত ১০ বছরে দেশে কোনো ধরনের জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি। এবারও বাজেটের পর জিনিসপত্রের দাম বাড়বে না।' আজ সোমবার বিকেলে সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন অর্থমন্ত্রী।”

এটিভি অনলাইন শিরোনাম পরিবর্তন করলেও ইন্ট্রোতে এখনও রয়েছে--

“দেশে গত ১০ বছরে কোনো ধরনের জিনিসপত্রের দামই বাড়েনি বলে দাবি করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। অর্থমন্ত্রী বলেন, আমি দেশবাসীকে এ সুসংবাদ দিতে চাই যে, গত ১০ বছরে দেশে কোনো ধরনের জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি। এবারও বাজেটের পর জিনিসপত্রের দাম বাড়বে না।”

বাস্তবে দেখা যাচ্ছে মিডিয়ায় যেভাবে এসেছে, অর্থমন্ত্রী কথাগুলো সেভাবে বলেননি। ‘বাজেটের দেশের মানুষের জন্য কোনো বিশেষ সুসংবাদ আছে কিনা’- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “ওহ খুশির তো ব্যাপার একটা আছেই। New taxes are very few. আর (পণ্যে) মূল্য বৃদ্ধি এগুলো খুব কম হয়েছে। এটি তো মস্ত বড় খুশির সংবাদ। এবং আমি বলবো যে, গত দশ বছরে বাজেট ঘোষণার পর বাজারে তেমন কোনো প্রভাব পড়েনি। এবং এটা (এবারও) চলবে।”

(ইংরেজিতে তার বক্তব্যটা হুবহু হল- “And I would say, in the last 10 years after the declaration of the budget, there has not been much impact in the market. And this will continue...”

‌‘১০ বছরে জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি’ আর ‘গত দশ বছরে বাজেট ঘোষণার পর বাজারে তেমন কোনো প্রভাব পড়েনি।’ বক্তব্য দুটি কোনোভাবেই এক রকম নয়। বরং দুটি সম্পূর্ণ ভিন্ন অর্থবহ।

ভিডিও দেখুন এখানে

অবশ্য ‘বাজেট ঘোষণার পর বাজারে প্রভাব পড়েনি’- অর্থমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের সত্যতাও প্রশ্নবিদ্ধ। কারণ, বিগত বছরগুলোতে বাজেট ঘোষণার পরপর বাজারে নানা পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির খবর সংবাদমাধ্যমে এসেছে। যেমন ২০১৪ সালে বাংলানিউজের এই প্রতিবেদনটি-- ‘বাজেটের পর মোবাইল-বাজারে অরাজকতা’

২০১৩ সালে বাজেট ঘোষণার পরপরই সাধারণ মানুষের প্রতিক্রিয়ার উপর নির্ভর করে প্রথম আলোর রিপোর্টের শিরোনাম ছিলো, ‘বাজেট হইছেনি, কিসের দাম বাড়ল?’

এছাড়া বাংলাদেশে এখন বাজেট ঘোষণার পরে নয়, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বাজেটের আগেই দাম বাড়িয়ে নেন ব্যবসায়ীরা। উদাহরণ হিসেবে বলা যায় ২০১৫ সালের যুগান্তরের এই লেখাটি-- ‘বাজেটের আগেই দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি!’

 

Related Post