মেসি কি ফিলিস্তিনি শিশুদের হত্যার কারণে ইসরাইলের সাথে খেলা বাতিল করেছেন?

08 June, 2018 05:06 AM আন্তর্জাতিক

জাহেদ আরমান

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অার্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসির একটি বক্তব্য ভাইরাল হয়েছে। যেখানে মেসি বলেছেন, “আমি একজন ইউনিসেফ এর অ্যাম্বাসেডর হয়ে তাদের বিরুদ্ধে খেলতে পারিনা। যারা কিনা নিষ্পাপ ফিলিস্তিনি শিশুদেরকে হত্যা করে। আমরা খেলাটি বাতিল করেছি। কারন আমাদের সবারই ফুটবলের চাইতে মানবতা বড়।” বিডি ফ্যাক্টচেক-এর অনুসন্ধানে লিওনেল মেসির এই ধরণের বক্তব্যের কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি।

এই তথ্যটি ছড়ায় একটি টুইটের মাধ্যমে। ৬ জুন সিন মারি নামক একজন চলচ্চিত্র নির্মাতা একটি টুইটের মাধ্যমে জানান, “Lionel Messi on TyC Sport: “As a UNICEF ambassador, I cannot play against people who kill innocent Palestinian children. We had to cancel the game because we are humans before footballers.”

এই টুইটটি ১২ হাজার একশ ২৯বার রিটুইট করা হয়েছে।২৩ হাজার সাতশ ৪৬ জন এতে লাইক দিয়েছে। পাচঁশ ২২ জন এই টুইটে কমেন্ট করেছে এবং ২৪ হাজার ব্যবহারকারী “লাভ” প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে। বাংলাদেশেও এই টুইটের বাংলা অনুবাদ শেয়ার হচ্ছে। অনেকেই বিডি ফ্যাক্টচেক-এর কাছে এটার ফ্যাক্ট যাচাইয়ের জন্য অনুরোধ করেছেন।

বিডি ফ্যাক্টচেক প্রথমে টিওয়াইসি স্পোর্টস-এর ওয়েবসাইটে এই তথ্যটি আছে কিনা তা যাচাই করে। ইংরেজি ও স্প্যানিশ ভাষায় টিওয়াইসি স্পোর্টস-এর ওয়েবসাইটের সার্চ অপশনে মেসির বক্তব্যের বিভিন্ন “কিওয়ার্ড” ব্যবহার করে তথ্যটি খুঁজে দেখা হয়। কিন্তু কোনো ফলাফল পাওয়া যায়নি।

আর্জেন্টিনার বুয়েন্স আয়ার্স হেরাল্ড, ক্লারিন, ক্রনিকা, লা দিয়সহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে এই তথ্যটি নিয়ে কোনো সংবাদ পাওয়া যায়নি।

টি ওয়াই সি স্পোর্টস এর কাছে তথ্যটির সত্যতা নিয়ে ইমেইল করা হলে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে প্রতিবেদক মার্টিন আরেভালোর সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয় যিনি এখন আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচ কাভার করার জন্য বার্সেলোনায় অবস্থান করছেন। পরে বিডি ফ্যাক্টচেক মাটিন আরেভালোর কাছেও তথ্যটির সত্যতা যাচাইয়ের জন্য ইমেইল করে। তিনি এখনও ইমেইলের উত্তর দেননি।

তবে তিনি গত ৬ জুন তাঁর ভেরিফাইড টুইটার একাউন্টে লিখেন, “আপনারা যা লিখছেন তা মিথ্যা। মেসি এই বিষয় নিয়ে টি ওয়াই সি স্পোর্টস অথবা অন্য কোনো গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেননি। মেসি তার বিশ্বকাপের প্রস্তুতি চলাকালীন কোনো গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলছেন না।”

 

Related Post