প্রশ্ন :

ফেসবুকে দেখলাম “ইস! কৌশলটা আগে জানা থাকলে বাবা স্ট্রোক করে মারা যেতেন না” শিরোনামের একটি নিউজ সবাই শেয়ার দিচ্ছে। স্ট্রোকে আক্রান্ত ব্যক্তির জীবন বাচাঁতে রক্তক্ষয় পদ্ধতি কি অাদৌ কার্যকরী?

উত্তর :

স্ট্রোকে আক্রান্তু ব্যক্তির আঙ্গুল কেটে রক্তক্ষয় করানোর ফলে রোগী ভালো হয়ে যান বলে যে সংবাদ বিভিন্ন অনলাইন পোর্টাল এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত হচ্ছে বিডি ফ্যাক্টচেক- এর অনুসন্ধানে তার সত্যতা পাওয়া যায়নি। 

“ইস! কৌশলটা আগে জানা থাকলে বাবা স্ট্রোক করে মারা যেতেন না” শিরোনামের এই সংবাদে বলা হচ্ছে, “চীনের অধ্যাপকরা বলছেন যে কারো স্ট্রোক হচ্ছে যদি এমন দেখেন তাহলে আপনাকে নিম্নোক্ত পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে। … আপনি কয়েক সেকেন্ডের জন্য আগুনের শিখার উপরে একটি সুচকে গরম করে নেবেন যাতে করে জীবাণুমুক্ত হয়। এরপর রোগীর হাতের দশ আঙ্গুলের ডগার নরম অংশে ছোট ক্ষত করতে এটি ব্যবহার করুন। এমনভাবে করুন যাতে প্রতিটি আঙুল থেকে রক্তপাত হয়। ...দেখবেন ধীরে ধীরে রোগী সুস্থ হয়ে উঠছে।”

এই সংবাদে আরও বলা হচ্ছে, “জীবন বাঁচাতে রক্তক্ষয় পদ্ধতি চীনে প্রথাগতভাবে চিকিৎসার অংশ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে এবং এই পদ্ধতির ব্যবহারিক প্রয়োগ শতভাগ কার্যকরী প্রমাণিত হয়েছে।”

একই শিরোনামে করা বিএনএডভাইসবিডি ডটকম এর সংবাদটি শেয়ার করে রেডিওসঙ্গী ডটকম এর ফেইসবুক পেইজ। সাত হাজারের উপর ফেইসবুক ব্যবহারকারী এই সংবাদ পোস্টটিতে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে এবং প্রায় তিনহাজারের মতো ব্যবহারকারী শেয়ার করেছে। ফেইসবুক ব্যবহারকারীরা এই পোস্টটিকে জনসচেতনতা বাড়ানোর জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট হিসেবেই শেয়ার করেছে। অথচ তারা জানে না এই সংবাদটির বৈজ্ঞানিক কোনো ভিত্তি নেই।

বিডি ফ্যাক্টচেক এই সংবাদটির সত্যতা যাচাই করার জন্য ভূয়া স্বাস্থ্য সংবাদের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধির পক্ষে কাজ করেন এমন ডাক্তারদের সঙ্গে যোগাযোগ করে।

কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডক্টর ইসমাঈল হোসেইন রিয়াদ বলেন, স্ট্রোকে আক্রান্ত ব্যক্তির জীবন বাচাঁতে রক্তক্ষয় একটি অযৌক্তিক পদ্ধতি। স্ট্রোকের ক্ষেত্রে রক্তচাপ কমপক্ষে ১৬০/১০০মি.মি. রাখাটা গুরুত্বপূর্ণ এবং ক্ষতিকারক উচ্চরক্তচাপ ছাড়া রক্তচাপ কমার কোনো ইঙ্গিত পাওয়া যায় না। তাই এটা রক্তপ্রদাহজনিত স্ট্রোক কিনা তা নিশ্চিত না হয়ে দ্রুত রক্তচাপ কমানোটা অযৌক্তিক মনে হয়। তিনি স্ট্রোকে আক্রান্ত ব্যক্তিকে সাথে সাথেই ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে বলেন।

অতএব দেখা যাচ্ছে, কোন্ ধরণের স্ট্রোক হয়েছে তা নিশ্চিত না হয়ে রক্তক্ষরণ করাটা কার্যকর পদক্ষেপ না।

ফ্যাক্ট যাচাই করেছেন জাহেদ আরমান

এই প্রশ্নের ফ্যাক্টচেক করতে সহায়তা করেছেন ইউনিভার্সিটি অব মিসিসিপি’র কম্পিউটার অ্যান্ড ইনফরমেশন সাইয়েন্স বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাঈমুল হাসান